অনলাইন ইনকাম

অনলাইনে ব্যবসা করার উপায় ও কৌশল

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম, আচ্ছালামু আলাইকুম। তো ভিউয়াস আজকে একটি ভিন্ন পোস্ট নিয়ে আপনাদের সামনে হাজির হয়েছি। তো পোস্টটি স্কিপ না করে মনোযোগ সহকারে পড়ার অনুরোধ রইল।

বর্তমানে সমাজ ব্যবস্থা খুবেই উন্নত। কেউ আর বেকার থাকেতে চায় না,তাই সবাই চায় নিজের ক্যারিয়ারকে গঠন করতে। কেউবা চাকরি-বাকরি করে কিংবা কেউবা ব্যাবসা-বানিজ্য করে ক্যারিয়ার গঠন করছে। তো আজকে আমি সেরকম একটি বিষয় নিয়ে আপনাদের সাথে ডিসকাস করতে চাচ্ছি। তো কথা না বাড়িয়ে মূল টপিকস্ এ যাওয়া যাকঃ-

অনলাইনে জগৎতে ব্যবসা করে প্রায় অনেকেই চায় নিজের ক্যারিয়ারকে গঠন করার। কিন্তু বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যায় ব্যবসার টাল সামলাতে না পেরে বাঁধার সম্মুখীন হয়। তো আজকে আমি চেষ্টা করবো কিভাবে অনলাইনে পন্য বিক্রয় করা যায়। আরও অনলাইনে ব্যবসার বেসিক বিষয় নিয়ে আলোচনা করবো।

আমি আশাবাদী আমার আর্টিকেলটি আপনাদের ভালো লাগবে।

বিক্রয়যোগ্য পন্য কিভাবে নির্বাচন করবেন

 

অনলাইনে ব্যবসা করার উপায়

অনলাইনে পন্য বিক্রয় করার যদি অভিজ্ঞতা না থাকে তাহলে বিক্রয়যোগ্য পন্য নির্বাচন করার ক্ষেত্রে অনেকখানি সমস্যা ফেস করতে হয়। তাই আপনাকে অনলাইনে ব্যবসা শুরুর আগে এই বিষয়ে পুরাপুরি না হলেও অল্প পরিসরে ঞ্জান অর্জন করতে হবে।

আপনার নিকটস্থ পণ্য অথাৎ হাতের নাগালেই পাওয়া যায় এমন পণ্য নির্বাচন থেকে বিরত থাকুন। এসব পণ্য মানুষ কষ্ট করে বাজার থেকে নিয়ে আসার চেষ্টা করে,তবুও অনলাইন থেকে ক্রয় করে খুবেই কম। তাই আপনি চেষ্টা করুন খুব সহজেই যে পণ্য পাওয়া যায় না তা নির্বাচন করার।

অনলাইন মার্কেটপ্লেসে চেষ্টা করবেন খাদ্য জাতীয় পণ্য নিয়ে ব্যবসা করার। কারণ, দেশে যতোই মন্দা হোক না কেন খাদ্য জাতীয় পণ্যের উপর কোনো রকম প্রভাব পরে না। খাদ্য দ্রব্য পণ্য বিক্রয় ক্ষেত্রে কিছু সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়।

আপনারা চেষ্টা করবেন স্বল্প দামে পণ্য ক্রয় করার। প্রথম দিকে একটু লস স্বীকার করতে হবে কিন্তু লাভের চিন্তা করা যাবে না।

সৌখিন পণ্য নির্বাচন করতে পারেন অনলাইন মার্কেটপ্লসে বিক্রয় করার জন্য। আপনারা হয়তোবা অবগত আছেন যে, গবেষণায় দেখা গেছে প্রায় ৭৫% মানুষ নিজ বেড রুমকে সৌন্দর্যে রাখতে চায়। বেড রুমের যাবতীয় প্রয়োজনীয় পণ্য মার্কেটপ্লসে শো করুন।

আপনি পারেন নিজ এলাকার পণ্য নিয়ে মার্কেটপ্লসে বিক্রয় করতে। কারণ দেশীয় পণ্যের চাহিদা প্রচুর। আপনার এলাকায় যদি প্রচুর আম আবাদ হয় তাহলে আম নিয়ে অনলাইনে ব্যবসা শুরু করতে পারেন। এটা মুলত লোকাল ব্যবসা হিসাবে অনলাইনে পরিচিত।

অনলাইন মার্কেটপ্লেসে কিভাবে মার্কেটিং করবেন

Marketing

 

আপনার ব্যবসাকে দ্বার করানোর জন্য মার্কেটিং হচ্ছে সবচেয়ে মুল বিষয়। আর সঠিক ভাবে মার্কেটং করতে না পারলে ব্যবসায় উন্নতি করতে পারবেন না। তাই মার্কেটিং উপর নজরদারি করতে হবে। কিভাবে অনলাইনে মার্কেটং করবেন সে বিষয়ে নিচে আলোচনা করা হলোঃ-

একেক পণ্যের একেক রকম ভাবে আপনাকে শো করতে হবে ক্রেতার কাছে। অনলাইন জগৎতে অনেক প্লাটফর্ম আছে। আপনি চাইলে সে বিষয়ে জেনে, যেখানে আপনার পণ্য গুলো বেশি সেল হবে সেখানে শো করাবেন। হাই কোয়ালিটি পণ্যের ক্ষেত্রে ইনস্টাগ্রাম ইনফ্লুনসার প্লাটফর্ম কে বাছাই করতে পারেন।

লোকাল পণ্য দিয়ে ব্যবসা করলে আপনি ফেসবুকে মার্কেটিং করতে পারেন। আপনি লক্ষ্য করলে দেখবেন প্রায় ৮০% মানুষ লোকাল পণ্য দিয়ে ফেসবুকে মার্কেটং করে।

ফেসবুকে মার্কেটিং করার ক্ষেত্রে পণ্যের ভিডিও আপলোড করার চেষ্টা করবেন। কারন পাবলিক কানে শুনার চেয়ে দেখাটা বেশি বিশ্বাস করে।

আপনার সামর্থ্য অনুযায়ী মার্কেটিং করার চেষ্টা করবেন। কম পুঁজি দিয়েই শুরু করুন দেখবেন একদিন ঠিকই সফলতা অর্জন করতে পারবেন।

পণ্যের প্যাকেজিং এবং ডেলিভারি কিভাবে করবেন

 

প্যাকেজিং এন্ড ডেলিভারি

 

তো ভিউয়াস এতোক্ষণে অনলাইন মার্কেটিং সম্পর্কে স্বল্প হলেও ধারণা তৈরি হয়েছে। একেক পন্যের একেক রকম সাইজ হয়ে থাকে। যেমন আমের উদাহরণ দিয়ে বিষয়টি বলা যাকঃ-

আমের সাইজ ছোট্ট এক্ষেত্রে আপনাকে মিনি ব্যাগ ব্যাবহার করতে হবে। আম যেনো ক্রেতারা ভালো ভাবে আপনার কাছ থেকে পেতে পারে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। কারণ যখনই আপনার কাছ থেকে ভালো সার্ভিস পাবে তখন আপনার পাবলিসিটি বেড়ে যাবে।

এতে করে আপনি এবং আপনার ব্যবসা দ্রুত গতিতে এগিয়ে যাবে। এবার বলা যাক ডেলিভারি সম্পর্কে,ডেলিভারি আপনি নিজেই করতে পারেন কিংবা মানুষ লাগিয়ে করতে পারেন। তবে নিকটে ডেলিভারি নিজে করলে ক্রেতার সাথে কমিউনিকেশন বৃদ্ধি পাবে। তাই অনলাইন মার্কেটপ্লেসে ব্যবসা করার ক্ষেত্রে প্যাকেজিং এবং ডেলিভারি এই বিষয়গুলীর উপর নজরদারি করতে হবে।

পণ্য ফেরত নিবেন কিনা

 

return

 

আপনারা যারা অনলাইনে প্রথম ব্যবসা শুরু করবেন তাদের উদ্দেশ্য বলি। ভাই প্রথম প্রথম একটু লস স্বীকার করতেই হবে তাই বলে ঘাবড়ানো কিছুই নাই।

পন্য ফেরতের বিষয়টি বলিঃ আপনার ব্যবসার পাবলিসিটির জন্য এরকম কিছু লোভনীয় অফার প্রদান করবেন। তাতে করে দেখবেন আপনারা ক্রেতারা আপনার প্রোডাক্ট ক্রয়ের চাহিদা বৃদ্ধি পাবে।

আপনি একটা ফ্রী সাইট ক্রিয়েট করবেন। সেখানে আপনার প্রোডাক্টের যাবতীয় নিয়ম নীতি সম্পর্কে লিখে রাখবেন। এবং ক্রেতারা যখন আপনার প্রোডাক্ট ক্রয় করার জন্য সম্মতি ঞ্জাপন করবে তখন তাকে আপনার ওয়েবসাইটটির লিংক প্রোভাইট করবেন।

অর্থ গ্রহন করুন

 

অর্থ গ্রহন

আমাদের দেশে পে-অন ডেলিভারি সার্ভিসটি ভালোই চলে। আপনাকে চেষ্টা করতে হবে পে-অন ডেলিভারি দেওয়ার। কারণ,আপনার পণ্য ক্রেতার কাছে ভালো লাগলে টাকা দুইদিন পরে হলেও পেয়ে যাবেন।

আপনাকে আর একটি বিষয় মাথায় রাখতে হবে, পণ্যের মান যেন সব সময় ভালো থাকে। আপনার পণ্যটি যেনো অন্যের পণ্যের চেয়ে র‍্যাংকে থাকে। তাহলে আপনি আপনার ব্যবসায় লাভবান হতে পারবেন।

2 Comments

    1. আপনার উপযুক্ত মতামত প্রদানের জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Copyright © 2022 bdinfo71.com | All Rights Reserved.